2018-01-25 11:29:40a

সর্বদা অতন্দ্রী প্রহরীর ন্যায় দায়িত্ব পালন করছি

এমডি বাবুল, নিজস্ব প্রতিবেদক: পেশাগত দায়িত্ব পালন শেষে সদরঘাট থেকে তাঁতি বাজার মোড়ের কাছাকাছি আসতেই প্রচন্ড জ্যামে বসে থাকতে হয়েছে। তখন রাত প্রায় ১২টার কাছাকাছি। বিভিন্ন পন্য বুঝাই ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, রিক্সা এলোপাথারি ভাবে জ্যাম লাগিয়ে দিয়েছে। বাইক নিয়ে একটু এগিয়ে আমার সহকর্মী সাংবাদিক বাবুল আহাম্মদকে বললাম সামনে এগিয়ে দেখে আসতে কোন ট্রাফিক পুলিশ আছে কিনা।

আমি আস্তে আস্তে কোন রকম তাঁতি বাজার পুলিশ বক্সের সামনে এসে বাইক থেকে নেমে দেখলাম, একজন পুলিশ অফিসার এদিক সেদিক ছুটাছুটি করে জ্যাম ছুঁটানোর চেষ্টা করছে। ভাবলাম হয়তো ট্রাফিক পুলিশ অফিসার হবে। অবশেষে তিনি সক্ষমও হয়েছেন।
পরবর্তিতে তার কাছে আমাদের পরিচয় দিয়ে কথাবার্তার ফাঁকে জানতে পারলাম তিনি কোতয়ালী থানাতে এ এস আই হিসেবে কর্মরত আছেন। তার নাম সালাহ্ উদ্দিন।
আমাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে, তিনি বলেন, জনগনের সেবা করার জন্যই সরকার আমাদের রেখেছেন। যদিও আমি ট্রাফিক বিভাগে নয়, তথাপিও জ্যাম ছুঁটানোটা একজন সেবক হিসেবে এবং নাগরিক হিসেবেও আমার দায়িত্ব। সেই দ্বায়িত্ববোধ থেকেই আমি ছুঁটে গিয়েছি। যতদিন চাকুরী করব ততদিন পেশাগত গত দায়িত্ব পালনের সাথে সাথে মানুষের সেবা করে যাব, এটাই আমার স্বপ্ন।তবে ব্যাক্তিগত বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

আইএনবি’র প্রতিবেদকের আরেক প্রশ্নের উত্তরে তিনি অত্যন্ত মার্জিত ভাষায় বলেন, আমাদের নিয়ে অনেক কথাই প্রচলিত ছিলো। থানায় নিয়ে নির্যাতন, মাদক, অনিয়ম, দুর্নীতিসহ আরও কত কি! তবে বিশ্বাস করুন, সে সবকিছুই এখন শুধুই ইতিহাস। পুলিশ এখন সর্বদাই চেষ্টা করে জনগনের জানমালসহ পুর্ননিরাপত্তার দিতে। আমি স্বীকার করছি, আমাদের কিছু অসাধূ কর্মকর্তা রয়েছেন, যার জন্য আজ আমরা জনমনে বিতর্ক হয়ে আছি।যেমনটা আপনাদের সাংবাদিগদের মধ্যে কিছু কতিপয় কার্ডধারী অপসংবাদকর্মী রয়েছেন, তাই বলে সবাইকে দোষারোপ করা যায় না।

তিনি আরোও বলেন, সবাই যদি সমান হত তাহলে আমাদের দেশের মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় থাকতে পারতনা। আমরা পুলিশ বিভাগ সর্বদা অতন্দ্রী প্রহরীর ন্যায় দায়িত্ব পালন করছি এবং যতদিন দায়িত্বে থাকব তা পালন করে যাব। এটাই আমার অঙ্গীকার।

এমনটাই বললেন কোতায়ালী থানার এ এসআই সালাহ্ উদ্দিন।

আইএনবি:বিভূঁইয়া