2018-01-25 09:40:47a

যেভাবে পাচার করে আনা হল উত্তর কোরিয়ার নিষিদ্ধ বই

আইএনবি প্রতিবেদক : বলা হয়, কল্পনার চেয়েও সত্য অনেক বেশি চমকপ্রদ। উত্তর কোরিয়া থেকে পাচার করে আনা একটি নিষিদ্ধ বইও এই প্রবাদ বাক্যকেই সত্য প্রমাণিত করে।

 

উত্তর কোরিয়ায় বসবাসরত এক ভিন্নমতাবলম্বীর লেখা ‘দ্য এক্যুইজিশন; উত্তর কোরিয়ার নিষিদ্ধ গল্প’ নামের এই বইটি উত্তর কোরিয়ার সাধারণ মানুষের জীবনভিত্তিক ছোটগল্পের একটি সংগ্রহ। তারা দীর্ঘদিন ধরে স্বাধীনতাবিহীন এবং অব্যাহত নজরদারীর মধ্যে বেঁচে আছে।

এই বইটি কথাসাহিত্যের ওপর ভিত্তি করে হলেও এটিকে উত্তর কোরিয়ার শাসনের যথাযথ প্রতিফলন হিসেবে দাবি করা হচ্ছে।

বইটির লেখকের নাম ‘ব্যান্ডি’ কোরিয়ান ভাষায় যার অর্থ দাঁড়ায় জোনাকি পোকা।

এই বইটিকে দক্ষিণ কোরীয় সক্রিয়তাবাদী ডো-হি-ইউন উত্তর কোরিয়া থেকে উদ্ধার করে আনেন। তিনি সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘এই বইটি সরকারি বন্দিশিবির, প্রকাশ্যে মৃত্যুদ- কিংবা মানবাধিকার নিয়ে লেখা না হলেও এটি উত্তর কোরিয়ার সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপনের চিত্র তুলে ধরে এবং সেটি খুবই ভয়ংকর। বইটিতে পরিষ্কারভাবে দেখানো হয় যে সাধারণ মানুষ ক্রীতদাসের মত জীবনযাপন করে।’

উত্তর কোরিয়া তাদের নেতার সম্পর্কে প্রচারণা চালাতে সবসময় এগিয়েই থাকে। ডো জানান, যখন তারা ভ্রমণের উদ্দেশ্যে উত্তর কোরিয়ায় যান তখন তাদের সাথে এক মহিলার পরিচয় হয়। কথায় কথায় তাঁকে দৈনন্দিন জীবনযাপনের কথা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি প্রথমে দ্বিধাবোধ করেন। এরপর তিনি বলেন, তার এক আত্মীয়র বইয়ে সকল কিছু লেখা আছে। তিনি সেই বইটি এনে প্রচারণা কাগজের মধ্যে ঢুকিয়ে দিলে ডো সেটি দক্ষিণ কোরিয়ায় নিয়ে চলে আসেন।

এই বইটি কোরিয়ান ভাষায় প্রথম প্রকাশ করা হয় ২০১৪ সালের মে মাসে এবং এটি ফরাসি ভাষায় অনুবাদ করা হয় ২০১৫ সালে। গত মাসে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে প্রকাশ করা হয় এবং বর্তমানে বইটি ১৯ টি ভাষায় পাওয়া যায়।

আইএনবি:শাওন/মেহেদী