10-06-2015

‘সুযোগ গুলো কাজে লাগাতে হবে’

সিরিজে একটাই টেস্ট। সেই টেস্টের আগে কাল ফতুল্লায় দুই অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ও বিরাট কোহলির সংবাদ সম্মেলনের নির্বাচিত অংশ—

শেবাগ টেস্টে বাংলাদেশকে ‘সাধারণ’ দল বলেছিলেন, তাঁর কী মত

বিরাট কোহলি: দেখুন, আমি এখনো বাংলাদেশের বিপক্ষে কোনো টেস্ট খেলিনি। ওদের দলটা তরুণ, আমাদেরও। ওয়ানডে ক্রিকেটে ওরা অনেক উন্নতি করেছে। সময় আর সুযোগ পেলে এবং আরও বেশি টেস্ট খেললে টেস্টেও ভালো দল হয়ে উঠবে। এই পর্যায়ে কিংবা যেকোনো পর্যায়ে বাংলাদেশকে বিচার করার আমি কেউ না। অন্য প্রতিপক্ষদের সঙ্গে আমরা অতীতে যেভাবে খেলেছি, এবারও সেভাবেই খেলব। 

বাংলাদেশকে নিয়ে পরিকল্পনা

কোহলি: পরিকল্পনা তো অবশ্যই আছে। প্রত্যেক ব্যাটসম্যানকে নিয়েই আমাদের পরিকল্পনা থাকে। আমরা তামিম, মুমিনুল, সাকিবের বিপক্ষে আগেও অনেক খেলেছি। তবে ওদের সবার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্ট খেলাটা তো কিছুটা আলাদাই। আমি যেটা আগেও বলেছি, ওরা ওয়ানডে খুবই ভালো খেলছে এবং ওই আত্মবিশ্বাসটা টেস্টেও চলে আসবে। পরিকল্পনা যেটাই থাকুক, সেটা বাস্তবায়ন করতে হবে এবং টেস্ট জেতার চেষ্টা করতে হবে। 

বাংলাদেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে পারবে কি না

কোহলি: অবশ্যই আমি মনে করি, ওরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে পারবে। পাকিস্তানও তো ভালো দল। ওদের বিপক্ষেও বাংলাদেশ রান করেছে, উইকেট নিয়েছে। ওরা কীভাবে খেলবে সেটা ওদের ব্যাপার। আমরা আমাদেরটা চিন্তা করব।

ভারতের একাদশ প্রসঙ্গে

কোহলি: উইকেট খুব ভালো মনে হচ্ছে—শক্ত, ঘাস নেই। আমরা দল নিয়ে এখনো ভাবিনি। বোলিং কোচ ও বোলাররা আগে উইকেট দেখবেন। আগে বুঝতে হবে, দিন গড়ালে উইকেট কতটা ভাঙবে। তারপর ঠিক করব আমাদের তৃতীয় স্পিনার লাগবে না তিন পেসার। তবে হাই-স্কোরিং ম্যাচের আশা করতে পারেন।

ফতুল্লায় মাত্র এক দিন অনুশীলন

কোহলি: বাংলাদেশের উইকেট সব জায়গাতেই একই রকম। মাটি তো আর আলাদা নয়। আমাদের অনেকেই গত বছর এখানে খেলেছে। কোথাও অনেক ক্রিকেট খেললে সেখানে বারবার অনুশীলন করার দরকার হয় না। বাংলাদেশেও আমরা অনেক ক্রিকেট খেলেছি। প্রস্তুতির দিক থেকে তাই কোনো সমস্যা নেই।

টেস্টে কোহলি যুগের শুরু

কোহলি: এটা আসলেই বিশেষ কিছু। আমি কখনো ভাবিনি, ২৬ বছর বয়সে ভারতের টেস্ট অধিনায়ক হব। ছোটবেলায় আমার একমাত্র স্বপ্ন ছিল ভারতের হয়ে টেস্ট খেলা। গত কয়েক বছরে মানসিকভাবে আমি অনেক পরিণত হয়েছি। আমার নিজের কিছু লক্ষ্য আছে এবং দলের সঙ্গে সেগুলো আলোচনাও করেছি। নিয়মিত টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে শুরু করাটা আমার জন্য খুবই রোমাঞ্চকর।

বাংলাদেশে অতীতে নিজের ভালো পারফরম্যান্স

কোহলি: বাংলাদেশে আমার বিশেষ কয়েকটা ইনিংস আছে। এখানে ব্যাটিং কন্ডিশন খুব ভালো। ব্যাটসম্যান হিসেবে আপনাকে সেই সুযোগটা কাজে লাগাতে হবে। সেটা করতে পেরেছি বলেই আমি এখানে রান করেছি। তবে এখন দলে ভূমিকা আলাদা। লক্ষ্য থাকবে, ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের দিকে না তাকিয়ে দলের জয়ের কথা ভাবতে।

অধিনায়ক কোহলিকে খুব বিপজ্জনক বলেছেন মুশফিক

কোহলি: এমনিতেই আমাকে অনেক চাপ সামলাতে হয়। অন্যরা কী বলল, সেটা ভেবে আর চাপ নিতে চাই না। আমার চাপটা কিন্তু বাইরে থেকে আসে না। এটা প্রতিটি ক্রিকেটারের একটা স্বাভাবিক অনুভূতি। যখন আমি দলের নেতৃত্ব দিই, ব্যাটসম্যান হিসেবে আরও দায়িত্বশীল থাকি। অন্যদের কিছু করতে বলার আগে আমি নিজে আগে সেটা করতে পছন্দ করি। আমি নিজে যদি দায়িত্ব নিয়ে ব্যাটিং না করি, তাহলে অন্যদের সেটা বলার অধিকার নেই। আমি ভালো কিছু করলে সেটার ইতিবাচক প্রভাব পড়বে দলে।